টপ ১০ টা আদুরে প্রাণী যা আসলেই মারাত্নক
ছবিঃ আদরের প্রাণী

টপ ১০ টা আদুরে প্রাণী যা আসলেই মারাত্নক

পৃথিবীতে হাজারো আদুরে প্রাণী আছে। আমাদের অজানা অনেক আদরের প্রাণীও মারাত্নক হয়। আমাদের গৃহে পালন করি এমনও প্রাণী আছে যা আমাদের অজান্তে অনেক ক্ষতি করে। প্রতিবছর ১২ বিলিয়ন এরও বেশি লোকের প্রাণহানির জন্য দায়ী আমাদের গৃহে বসবাস কারী প্রাণী। আপনি আপাত একটু দয়ালু, মৃদু প্রাণীর কাছে যাওয়ার আগে নিশ্চিত হয়ে নিন যে তাদের নাম নীচে নেই।

প্রাণী
ছবিঃ আদরের প্রাণী

* ১০ টি প্রাণীর বর্ননা নিচে দেয়া হলোঃ

১। পাফারমাছঃ

পাফারমাছ দেখতে অনেক সুন্দর। নিমো ফাইন্ডিং-এ পাফারফিশগুলি একটি সুন্দর ক্যামো তৈরি করেছে। পাফারমাছ সাধারনত খাওয়া যায়, কিন্তু এরা অনেক বিশাক্ত। এই মাছগুলি সায়ানাইডের তুলনায় ১২০০ গুণ বেশি বিষাক্ত হয়।

পাফারফিস
ছবিঃ পাফারমাছ

 

২। হিপ্পোপটামাসঃ

আপনি ভাবতে পারেন যে হিপ্পোপটামাসের বৃহত আকার এটি ধীরগতি করে দেবে, তবে দুর্ভাগ্যক্রমে এরা অনেক দ্রুতগামী হয়। এই প্রাণীগুলি মানুষের চেয়ে দ্রুত দৌড়াতে পারে এবং কোনও রাগ বা ক্ষোভ ছাড়াই যে কোনও কিছুতে আক্রমণ করে এবং বিবিসি জানিয়েছে যে তারা প্রতি বছর আফ্রিকার প্রায় ৫০০ মানুষের মৃত্যুর জন্য দায়ী।

hippopotamus
ছবিঃ হিপ্পোপটামাস

 

৩। স্লো বা ধীর লরিসঃ

মৃদু চোখ ও সুন্দর গঠন এই ধীর লরিস। যদিও এগুলি সৌম্য শিশুর মতো দেখায় তবে এই দুষ্টু স্তন্যপায়ী প্রাণীরা আসলে বেশ বিষাক্ত। যদি তারা আক্রমণ অনুভব করে তবে তারা তাদের লালা এবং পশমের সাথে তাদের বিষ মিশ্রিত করতে পারে এরা যদি ইচ্ছা করে তবে শিকারীদের ক্ষতি করতে পারে।

Slow Loris
ছবিঃ স্লো বা ধীর লরিস

 

৪। ব্লু-রিঞ্জড অক্টোপাসঃ

মারাত্মক জিনিসগুলি ছোট প্যাকেজগুলিতে আসে। উদাহরণস্বরূপ, নীল রঙযুক্ত অক্টোপাসটি ধরুন: সমুদ্রের প্রাণীটি আপনার গড় ক্যান্ডি বারের চেয়ে ছোট হলেও এরা সায়ানাইডের চেয়ে ১০০০ গুণ বেশি শক্তিশালী বিষ ধারণ করে এবং এতে কেবল কয়েক মিনিটের মধ্যেই ২৬ জন মানুষকে মেরে ফেলা যায়।

Blue-Ringed Octopus
ছবিঃ ব্লু-রিঞ্জড অক্টোপাস

 

৫। চিতা সীলঃ

সীলকে চতুর “সমুদ্রের কুকুরছানা” হিসাবে মানুষেরা ভাবতে পছন্দ করে। ১০ ফুট পর্যন্ত লম্বায় বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম সিল, এই প্রাণীগুলি কুখ্যাত ভাবে আক্রমণ করে। যে কোনও বিজ্ঞানী বা ফটোগ্রাফার চূড়ান্ত মূল্য পাওয়ার জন্য এক ঝুঁকি নিয়ে এদের খুব কাছে চলে যায়।

Leopard Seal
ছবিঃ চিতা সীল

 

৬। গৃহপালিত বিড়ালঃ

বাসাবাড়িতে অতি আদর দিয়ে পালিত হয় বিড়াল। তবে আমাদের অজান্তে বিড়াল বাড়ির উঠোনের সমস্ত জিনিসকে হত্যা করতে পারে। নেচার জার্নালে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনে দেখা গেছে, কেবল যুক্তরাষ্ট্রেই গড়ে বছরে গড়ে ২.৪ বিলিয়ন পাখির মৃত্যু এবং মোট ১২.৩ বিলিয়ন স্তন্যপায়ী প্রাণীর মৃত্যুর জন্য বিড়াল দায়ী।

Domestic Cat
ছবিঃ গৃহপালিত বিড়াল

 

৭। ক্যাঙ্গারুঃ

ক্যাঙ্গারু এক প্রকারের স্তন্যপায়ী প্রাণী। এদের কেবলমাত্র অস্ট্রেলিয়া ও তার পার্শবর্তী দ্বীপগুলিতে দেখা যায়। যদিও ক্যাঙ্গারুদের সরাসরি মানুষ আক্রমণ করার ঝুঁকি থাকে না, তবে কুকুরের ক্ষতি করার জন্য তাদের রয়েছে একটি ছদ্মবেশ, যা প্রায়শই ক্যাঙ্গারু এবং কুকুরের মালিকদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে।

Kangaroo
ছবিঃ ক্যাঙ্গারু

 

৮। নেকড়েঃ

নেকড়েদের ছিদ্রযুক্ত চেহারা এবং সংশ্লিষ্ট চিৎকার সহ, নেকড়েগুলি বিশ্বজুড়ে আদর এবং বিতর্ক উভয়ই অনুপ্রাণিত করে। কুকুর এবং নেকড়েদের মাঝে একটি সাধারণ পূর্বপুরুষের ভাগ রয়েছে। এদের আত্মীয়দের মতো নেকড়ে মানুষের প্ররোচিত না হলে মানুষ কে আক্রমণ করবে না, তবে এরা বিশাক্ত। এদের কামড়ে অনেক মানুষের প্রাণহাণী হয়।

নেকড়ে
ছবিঃ নেকড়ে

 

৯। চিতাবাঘঃ

চিতাবাঘ সাধারণত সিংহের চেয়ে মানুষের কাছে আরও বেশি বিপজ্জনক বলে মনে করে। প্রকৃতপক্ষে, টাটা ইনস্টিটিউট অফ ফান্ডামেন্টাল রিসার্চ অনুসারে, ভারতের কিছু অংশে, চিতাবাঘ অন্য সমস্ত বড় মাপের মাংসপেশীর চেয়ে মানবিক মৃত্যুর জন্য দায়ী।

Leopard
ছবিঃ চিতাবাঘ

 

১০। কুকুরঃ

মানুষ বহু শতাব্দী ধরে তাদের নিজের ঘরে কুকুরগুলি রেখে পরিবারের মতো আচরণ করে। তবে কুকুর বিশাক্ত সত্ত্বেও তাদের লালনপালন করে, কুকুরের আক্রমণ প্রায় সাধারণ বিষয়, ১৯৮২ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং কানাডায় কুকুরের সাথে সম্পর্কিত ৪৬৬ জন মারা গেছে এবং ৪১০০০ এর বেশি আহত হয়েছে।

কুকুর Dog
ছবিঃ কুকুর

 

দয়ালু, মৃদু প্রাণীর কাছে যাওয়ার আগে নিশ্চিত অবশ্যই এই প্রাণী গুলো দের এড়িয়ে চলবেন।

Facebook Comments

YappoBD

YappoBD-হলো poshupakhi.com এর একমাত্র স্বত্তাধীকারি। এই ওয়েবসাইটের সকল প্রকার কন্টেন্ট ইয়াপ্পোবিডি কর্তৃপক্ষ দ্বারা লিখিত, পরিমার্জিত এবং এটি ইয়াপ্পোবিডি এর অঙ্গসংস্থান।