You are currently viewing আন্ডারগ্রাউণ্ডে মাটির নিচে অদ্ভুত প্রানীদের বাস

আন্ডারগ্রাউণ্ডে মাটির নিচে অদ্ভুত প্রানীদের বাস

মাটির নিচে অদ্ভুত প্রানীদের মুলত আণ্ডার গ্রাউন্ডে থাকা প্রানীদের নির্দেশ করে।বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের উপর নির্ভর করে প্রানীরা বিভিন্ন জায়গায় বাস করে।প্রানীদের বসবাসের উপর ভিত্তি করে তিন শ্রেনীতে ভাগ করা হয়।আকাশে চরে যে আকাশচর বা খেচর, জলচর এবং স্থলচর।এছাড়াও জলে এবং স্থলে উভয় জায়গায় চলাফেরা করে এমন উভচর প্রানীও রয়েছে।প্রানীদের চলাফেরা এবং বৈশিষ্ট্যের উপর ভিত্তি করে তাদের বিভিন্ন ভাবে বিভক্ত করা হয়।এছাড়াও কিছু কিছু প্রানী মাটির নিচে আণ্ডার গ্রাউন্ডেও অদ্ভুত প্রানী বাস করে।কিছু প্রানী নিজেদের মাটির নিচে নিজদের লুকিয়ে রাখতে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। এরা নিজেদের আলো এবং গাছপালা ছাড়া কিভাবে পরিবেশের সাথে মানিয়ে নিতে হয় তা অনেক সুন্দর এবং দক্ষতার সাথে মানিয়ে মানিয়ে নিয়েছে।এভাবে পরিবেশের সাথে মানিয়ে নেওয়াকে অভিযোজন বলে।

এই প্রানীগুলো অন্যসব প্রানীর জন্য মোটিভেশন রুপে কাজ করে।কেননা এরা সর্বদাই প্রতিকুল পরিবেশে নিজেদের বসবাস করার জন্য জন্য উপযোগী করে তুলেছে।প্রতিকুল পরিবেশে নিজেদের মানিয়ে নিয়ে  স্বাভাবিক ভাবে জীবন যাপন করে থাকে।এজন্য এই প্রানীগুলো মানুষ সহ অন্যান্য প্রানীদের প্রতি অনুপ্রেরনামুলক।আজকে আমরা সেই সব প্রানীদের সম্পর্কে জানাব যারা মাটির নিচে দীর্ঘ সময় কিংবা স্বল্প সময়ের জন্য গিয়ে থাকে। চলুন জেনে নেওয়া যাক।

ফেনেক ফক্সঃ

এদের সাহারা অঞ্চলের মরুভুমিতে দেখতে পাওয়া যায়।এদের অতি সহজেই চিনতে পারা যায়।এদের দেখতে অনন্য দেখায় এবং এদের বেশিভাগ  পোষা প্রানী  হিসাবে ব্যবহৃত হয়।দিনের বেলায় সূর্যের তীব্র তাপ এবং আলোর কারনে এরা সহজে বাহিরে আসে না।এদের দীর্ঘ কান এদের সম্পূর্ন শরীরকে শিতল রাখতে সহায়তা করে।এরা পানি খায় না কেননা নিজেদের মরুভূমিতে বাস করার মত পর্যাপ্ত দক্ষ করে গড়ে তুলেছে।

ফেনেক ফক্স
ছবিঃ ফেনেক ফক্স

ব্যুরোং প্যাঁচাঃ

প্যাঁচা সাধারনত গাছে বাস করে এবং কিন্তু এই প্রজাতির প্যাঁচা মাটির নিচে আণ্ডার গ্রাউন্ডে বাস করে।এরা দেখতে অনেক আকর্ষনীয় প্রকৃতির এবং গর্তে বাস করে।এরা মাটির নিচে ৮ ফিট পর্যন্ত গর্ত করে থাকে।এরা দিনের বেলায় সবচেয়ে বেশী সক্রিয় হয়ে থাকে।কিন্তু এরা মাটির উপরে থাকে।এদের বাসস্থান দিন দিন কমে আসছে।হিংস্র প্রানী হায়েনার সম্পর্কে অবিশ্বাস্য তথ্য জানতে ভিজিট করুন

পেঁচা
ছবিঃ ব্যুরোং প্যাঁচা

মঙ্গুজঃ

এদের আফ্রিকার অঞ্চলে দেখতে পাওয়া যায়।অন্যান্য সকল প্রকৃতির মঙ্গুজের চেয়ে এরা সবচেয়ে ছোট আকারের।মাটির নিচে অন্য সকল প্রানীর চেয়ে ছোট গর্তের দরকার হয় এদের।আফ্রিকার পূর্ব অঞ্চলীয় এলাকায় দেখতে পাওয়া যায়। এরা ৮ বছর পর্যন্ত বেঁচে থাকে।এরা শুধুমাত্র পোকামাকড় খেয়ে থাকে।মাটির নিচে অদ্ভুত প্রানী হিসেবে এরা অনেক পরিচিত।

মঙ্গুজ mangoose
ছবিঃ মঙ্গুজ

বিলবাইঃ

এরা অস্ট্রেলিয়ার ইউনিক প্রকৃতির খরগোশের মধ্যে একটি।এদের নাক অন্যান্য খরগোশের মতই স্বাভাবিক এবং এরা নিশাচর প্রানী।এদের লেজে গুচ্ছ প্রকৃতির চুল রয়েছে।এদের পা দেখতে অনেকটা ক্যাঙ্গারুর মত এবং এই বিষয়টিই অন্যান্য সকল প্রানী থেকে ইউনিক করে তুলেছে।

আণ্ডারগ্রাউণ্ড প্রানী
ছবিঃ বিলবাই খরগোশ

মাটির নিচে অদ্ভুত প্রানীঃ

এটি এক প্রকারের ইঁদুর যাদের মরুভুমিতে দেখতে পাওয়া যায়। এদের নাম জেরবোয়া। ইঁদুর মাটির ঘেষে চলতে থাকলেও এরাই একমাত্র ব্যাতিক্রম যারা মরুভুমিতে হাই জাম্প করতে পারে।এদের পা অনেক লম্বা প্রকৃতির হওয়াই এরা অনেক বেশি উচ্চতা পর্যন্ত লাফ দিতে পারে। এদের পিছনের পা অনেক শক্তিশালী এবং মাঝে মাঝে এরা ১০ ফিট উচ্চতা পর্যন্ত লাফ দিতে পারে। এশিয়া আফ্রিকার মরুভূমিতে এদের দেখতে পাওয়া যায়। এদের ৩০ ধরনের প্রজাতি রয়েছে। মিশর এবং কাতার অঞ্চলের  জেরবোয়া সবচেয়ে ক্ষুদ্র আকৃতির।

মাটির নিচে অদ্ভুত প্রানী
ছবিঃ মাটির নিচে অদ্ভুত প্রানী জেরবোয়া

পরিশেষে, মাটির নিচে আণ্ডারগ্রাউন্ডের প্রানীদের সম্পর্কে অনেক কিছু নতুন জানা গেল। নতুন প্রাণীদের সাথে পরিচিত হওয়া গেল।এমন আরও প্রানী  রয়েছে আন্ডারগ্রাউণ্ডে থাকে।এমন প্রানীদের সম্পর্কে জানতে আমাদের সাথেই থাকুন এবং আপনাদের মন্তব্য আমাদের সাথে শেয়ার করুন কমেন্ট বক্সের মাধ্যমে। ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন।

Facebook Comments

YappoBD

YappoBD-হলো poshupakhi.com এর একমাত্র স্বত্তাধীকারি। এই ওয়েবসাইটের সকল প্রকার কন্টেন্ট ইয়াপ্পোবিডি কর্তৃপক্ষ দ্বারা লিখিত, পরিমার্জিত এবং এটি ইয়াপ্পোবিডি এর অঙ্গসংস্থান।